32.4 C
Rajbari
বুধবার, জুন ২৯, ২০২২
Homeজাতীয়রাজশাহী বিভাগরাজশাহীতে করোনা সংক্রমণ ৭০ শতাংশ

রাজশাহীতে করোনা সংক্রমণ ৭০ শতাংশ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে রাজশাহীতে করোনা সংক্রমণে সৃষ্টি হয়েছে নতুন রেকর্ড। সংক্রমণের হার বাড়তে বাড়তে ৭০ শতাংশে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টা করোনায় একজন এবং উপসর্গ নিয়ে দুজন মারা যান। মৃতদের মধ্যে দুজন চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও একজন রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। তাদের বয়স ২১ থেকে ৬১ বছরের মধ্যে।

এদিকে করোনার এমন ভয়ানক সংক্রমণেও মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা নেই বললেই চলে। সবখানেই অনেকটা গা-ছাড়া ভাব।
সোমবার রাজশাহীর দুটি পিসিআর ল্যাবে এ জেলার ৫৪৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৮২টি নমুনাতেই করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় সংক্রমণের হার ৭০ দশমিক ৯ শতাংশ। করোনা সংক্রমণের এই হার এত বেশি আগে আর কখনই হয়নি। দেশে করোনার ওমিক্রন ধরন শনাক্তের পরই রাজশাহীতে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণের এই রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাজশাহীর ১৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে ৯৯টি করোনা পজিটিভ হয়েছে। এখানে সংক্রমণের হার ৫৫ দশমিক ৯৩ শতাংশ। আর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে তিন শিফটে করা ৫৪৫টি নমুনা পরীক্ষার মধ্যে ৩৮২ জনের পজিটিভ এসেছে।

সংক্রমণের হার ৫৫ দশমিক ৭০ শতাংশ। এদিকে রাজশাহীতে সংক্রমণের গড় হার ৭০ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ।

আগের দিন রোববার রাজশাহীর ৪৫৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়। এতে ২২৮ জনের করোনা পজিটিভ হয়। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে করোনার সংক্রমণের হার ছিল ৬০ দশমিক ৪৯ শতাংশ। কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সংক্রমণ বেড়ে গেছে ১০ শতাংশ। রাজশাহীতে করোনার ডেল্টা ধরনের সময়ও এত দ্রুত ও অধিকহারে সংক্রমণ বাড়েনি বলে জানিয়েছেন রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. নাজমা আক্তার।

এদিকে সোমবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯২ শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীর নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৬২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সংক্রমণের হার হয় ৬৭ শতাংশ। ক্যাম্পাসেও করোনার এমন সংক্রমণে উদ্বিগ্ন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের প্রধান ডা. তবিবুর রহমান সেখ বলেন, আমাদের এখানে করোনা সংক্রমণ খুবই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। যদি এভাবে ক্রমাগত বাড়তে থাকে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন হবে। শিক্ষার্থীদের উচিত হবে যাদের অনলাইনে ক্লাস হচ্ছে তাদের বাড়ি চলে যাওয়া। অন্যথায় সবার মধ্যে দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে।

তিনি আরও বলেন, যারা এখনো টিকার আওতায় আসেনি তাদের দ্রুত টিকার আওতায় আনতে হবে। স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে শিক্ষার্থীদের আরও সতর্ক হওয়া দরকার।

এদিকে রাজশাহীতেই হু হু করে সংক্রমণ বাড়লেও এখনও পথে-ঘাটে মানুষ ঘুরছেন মাস্ক ছাড়াই। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিন্দুমাত্র চেষ্টাও করছেন না কেউ। তবে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত সীমিত পরিসরে অভিযান চালিয়ে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটানোর চেষ্টা করছে।

সোমবার ভ্রাম্যমাণ আদালত সাতটি মামলায় সাতজনের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে। একজনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। করোনা সচেতনতায় বিতরণ করা হয়েছে ১০৭টি মাস্ক।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments