28.8 C
Rajbari
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২
Homeজাতীয়ঢাকা বিভাগফরিদপুরে ডিসির কাছে মোটরসাইকেল চালকদের স্মারকলিপি প্রদান

ফরিদপুরে ডিসির কাছে মোটরসাইকেল চালকদের স্মারকলিপি প্রদান

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ “মহাসড়কে মোটরসাইকেল চলাচলের বিধিনিষেধ অপসারণের জন্য সুপারিশ প্রসঙ্গে মাননীয় জেলা প্রশাসক মহোদয় সমীপে দেশব্যাপী ঈদ উপলক্ষে মোটরসাইকেল চলাচলের বিধিনিষেধ অপসারণ ফরিদপুর জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে ” ফরিদপুরের সকল মোটরসাইকেল ব্যবহারকারীরা”।

সোমবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের হাতে স্মারক লিপি তুলেন ফরিদপুরের বাইকাররা।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, অশেষ শ্রদ্ধা ও সম্মান- পূর্বক বিনীত নিবেদন, আমরা অত্র ফরিদপুর জেলার মোটরসাইকেল ব্যবহারকারী আপনার নিকট কতিপয় আবেদন জানাচ্ছি যে, গত ৩ জুলাই প্রকাশিত সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় এর প্রজ্ঞাপন এ বলা হয়েছে যে আগামী ৭ জুলাই থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত যৌক্তিক কারণ ছাড়া মহাসড়কে মোটরসাইকেল চলাচলের বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

এই বিধিনিষেধের কারণে ঈদ যাত্রায় মোটরসাইকেল আরোহীদের চলাচলের একটি বিঘ্নতা সৃষ্টি হয়েছে। যেটি সারাদেশের মোটরসাইকেল ব্যাবহারকারীদের মাঝে একটি বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে।

মাননীয় জেলা প্রশাসক 
প্রকৃতপক্ষে, মোটরসাইকেল আমাদের দৈনন্দিন জীবনে একটি অপরিহার্য বাহন যা আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে এছাড়াও মোটরসাইকেল আমাদের প্রত্যাহিক জীবন এবং যোগাযোগ ব্যবস্থার একটি অপরিহার্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বর্তমানে তরুণ পেশাজীবীদের জন্য মোটরসাইকেল চলাচলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

এছাড়া করোনা কালীন সময়ে মোটসাইকেলের ব্যবহার ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে যা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে করোনা প্রতিরোধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। বর্তমানে করোনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং করোনা মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে মোটরসাইকেল একটি অপরিহার্য বাহন।

মাননীয় জেলা প্রশাসক, সাধারণত প্রতি ঈদেই লাখো পরিবার পরিজনের সাথে ঈদ উদযাপন করতে ঘরমুখী হয়ে থাকে, যদিও আমাদের যোগযোগ ও সাধারণ পরিবহন ব্যাবস্থার অপ্রতুলতার কারণে ঈদ যাত্রা কষ্টদায়ক হয়ে থাকে সেইজন্য অনেকেই তার নিজস্ব পরিবহন ব্যবহার করে থাকে তার মাঝে মোটরসাইকেল ব্যবহারকারীর সংখ্যা অধিক।

কিন্তু উক্ত বিধিনিষেদের কারণে এই ঈদে লাখো মোটরসাইকেল ব্যাবহারকারী তার পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে সমস্যার সম্মুখীন হবেন।

মাননীয় জেলা প্রশাসক, হেলমেট এবং আনুষাঙ্গিক নিরাপত্তা উপকরণ ব্যবহার করে এবং ট্রাফিক নিয়মকানুন মেনে চললে সড়কে দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হবে।

উপরোক্ত সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে মহোদয় এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আবেদন জানাচ্ছি, বিধিনিষেধটি বিবেচনা করে যথার্থ কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে আপনার মর্জি হয়।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments