28.8 C
Rajbari
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২
Homeরাজবাড়ীছাগল চুরি করতে এসে আটক ওয়ারেন্টের আসামি

ছাগল চুরি করতে এসে আটক ওয়ারেন্টের আসামি

শামীম শেখ, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে ছাগল চুরি করতে এসে জনতার হাতে ধরা পড়েছে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত এক আসামী।

তার নাম মিজান বেপারী (২৭)।সে উপজেলার পূর্ব উজানচর গফুর মন্ডল পাড়ার গোলাপ বেপারির ছেলে।সে একজন চিহ্নিত চোর। থানায় তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।

আটক মিজান বেপারী জানান , মঙ্গলবার (২ আগষ্ট) সকাল ১০ টার দিকে তিনি পশ্চিম উজানচর রমজান মাতুব্বর পাড়ার (জমিদার ব্রিজ) খোলা মাঠ হতে সে একটি ছাগল চুরি করে। ছাগলটি বিক্রির উদ্দেশ্যে দৌলতদিয়া ক্যানাল ঘাটের অস্থায়ী হাটে নিয়ে গেলে লোকজনের বিভিন্ন প্রশ্নে সে এলোমেলো কথা বলে।এতে সন্দেহ হলে তারা আমরা ধাওয়া দেয়। আমি ছাগল ফেলে পাশেই অবস্থিত দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুলে গিয়ে আশ্রয় নেই।এ সময় আমি স্কুলের স্যারদের বলি, আমার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট আছে।আমাকে পুলিশে দিয়ে দেন। দয়া করে জনতার হাত থেকে বাঁচান।
পরে শিক্ষকরা আমাকে গণধোলাইয়ের হাত থেকে রক্ষা করেন।

ক্যানাল ঘাটের ইজারাদার খলিল শেখ বলেন, ছাগলটির দাম অন্তত ৬/৭ হাজার টাকা। কিন্তু সে দাম চায় মাত্র ৪ হাজার টাকা। যেন কোনমতে বিক্রি করে যেতে পারলেই রক্ষা। এতে আমাদের সন্দেহ হলে কিছু প্রশ্ন করা হয়।একপর্যায়ে সে দৌড় দেয়।

দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মুহম্মদ সহিদুল ইসলাম বলেন, ছাগল চোরের দেয়া ঠিকানা অনুযায়ী আমরা ছাগলের মালিকের খোঁজ করে তাকে খবর দেই।সেইসাথে পুলিশকে খবর দেই।পরে পুলিশের উপস্থিতিতে ছাগলটিকে তার মালিকের হাতে তুলে দেয়া হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার এস মিজানুর রহমান বলেন,খবর পেয়ে আমরা দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুলে যাই।এ সময় ছাগল মালিকের আফজাল মোল্লা ছাগল চুরির বিষয়ে কোন মামলা করতে রাজী নন বললে ছাগলটি তাকে বুঝিয়ে দেয়া হয়। এছাড়া চোর মিজান বেপারীর নামে থানার একটি জিআর মামলার ওয়ারেন্ট থাকায় তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়া হয়।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments