29.9 C
Rajbari
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২
Homeরাজবাড়ীগোয়ালন্দে মহাসড়কের কিনারায় ময়লার স্তুপ-দুর্ভোগে পথচারীসহ যাত্রীরা

গোয়ালন্দে মহাসড়কের কিনারায় ময়লার স্তুপ-দুর্ভোগে পথচারীসহ যাত্রীরা

মো. সাজ্জাদ হোসেন, গোয়ালন্দ প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার গোয়ালন্দ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ বাস ষ্ট্যান্ড পদ্মারমোড় এলাকায় রাস্তার কিনারায় ময়লার স্তুপ থাকার কারণে দুর্গন্ধে পথচারীদের চলাফেরায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

পথচারীসহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহনের যাত্রীরা নাকচেপে, নাকে রুমাল চেপে ওই এলাকা দিয়ে পারাপার হতে দেখা যায়। তরপরেও ময়লা অপসারণের উদ্যোগ নেই সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একের অধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, গোয়ালন্দ পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরা প্রতিদিন রাতের বেলা গোয়ালন্দ বাজার,গোয়ালন্দ পৌর জামতলা বাজার,বাস ষ্ট্যান্ড বাজারসহ দোকানীদের ফেলানো ময়লা-আবর্জনা এখানে ফেলার কারণে ময়লার স্তুপের সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় গোয়ালন্দ উপজলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ পদ্মারমোড় এলাকার ব্রিজের সামনে মহাসড়কের কিনারায় বিশাল ময়লার স্তুপ। বাতাসে ময়লার স্তুপ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে চারপাশে। পথচারীসহ বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রীরা ময়লার স্তুপের কাছে আসার আগেই নাক চেপে কেউবা আবার নাকে রুমাল চেপে জায়গাটি পার হন।

গোয়ালন্দ উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের স্থানীয় বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরীজীবী রাসেল আহমেদ (৩৫) নামের এক পথচারী বলেন, ময়লার স্তুপের দুর্গন্ধে পথচারীদের পথচলা দায়। এতে করে মানুষের রোগ-জীবানু হওয়ার চরম আশঙ্কা রয়েছে। অচিরেই সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে এদিকে নজর দেয়া দরকার।

গোয়ালন্দ পৌরসভা ২ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রুবিয়া আক্তার বলেন, এখান দিয়ে এখন যাতায়াত করা মুশকিল হয়ে পরেছে। দুর্গন্ধে বমি চলে আসে। সামনে গরমের দিন আসতেছে। এভাবে ময়লা ফেলতে থাকলে আশেপাশের মানুষের বসবাস করায় কষ্টসাধ্য হয়ে যাবে।

বেপারী পাড়ার বাসিন্দা সাহিন শেখ বলেন, গোয়ালন্দ বাজার থেকে বাজার করে প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে বাড়ী ফিরতে হয় যখনি এখানে আসি তখন গন্ধে পেট ফুলে যায়। অতি দ্রুত এই ময়লা ফেলা বন্ধ না হলে এপথ দিয়ে যাতায়াত করা খুবই কষ্ট হবে।

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোশারফ হোসেন কুটিন রাজবাড়ী ডটকমকে বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। আমি খোঁজ-খবর নিয়ে অচিরেই বিষয়টি প্রতিকারের চেষ্টা করব।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments