20 C
Rajbari
সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২
Homeরাজবাড়ীগোয়ালন্দে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে, নিহত ১ আহত ১৯ 

গোয়ালন্দে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে, নিহত ১ আহত ১৯ 

মো. সাজ্জাদ হোসেন-গোয়ালন্দ প্রতিনিধি
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন সংলগ্ন ইমামবাড়া শরীফের সামনে যাত্রীবাহী লোকাল বাস (ফরিদপুর-ব-০২-০০০৫) ও মাছ বাহী ট্রাকের (যশোর-ট-১১-৪৮২৬)মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে।
এতে ঘটনাস্থলে অজ্ঞাত এক পথচারী ৪৫ উর্ধ্ব বয়সী মহিলার মৃত্যু হয় ও ১৯ জন গুরুতর আহত হয়েছে।
মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) সন্ধ্যা ৭ টায় এ দূর্ঘটনা ঘটে।
মাছ বাহী ট্রাকের মালিক মো.আলাউদ্দিন শেখ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাছ বাহী ট্রাকটি যশোরের চাচড়া বাজার থেকে মাছ বোঝাই করে ঢাকা যাচ্ছিলেন এবং যাত্রীবাহী বাসটি দৌলতদিয়া থেকে ফরিদপুর যাচ্ছিলেন।
যাত্রীবাহী বাসটি গোয়ালন্দ উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন সংলগ্ন ইমামবাড়া শরীফের সামনে পৌঁছাতেই ইমামবাড়া শরীফ থেকে বের হয়ে অজ্ঞাত  ৪৫ উর্ধ্ব বয়সী এক মহিলা সড়ক পার হতে যান।
এসময় মহিলাকে বাঁচাতে গিয়ে অপরদিক থেকে আসা মাছ বাহী ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনাস্থলেই মহিলার মৃত্যু হয়।
এসময় ট্রাক ও বাসের চালক এবং সহযোগীসহ ১৯ জন গুরুতর আহত হন। দূর্ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত সময়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যান। এছাড়াও ঘটনাস্থলে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ উপস্থিত হয়।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহ্ মুহাম্মদ শরীফ জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় ১৯ জনকে হাসপাতালে আনা হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য আশংকাজনক অবস্থায় ৬ জনকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
এছাড়া বাকি সবাইকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
আহলাদীপুর হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক আসিফ ইকবাল জানান, দূর্ঘটনায় ১৯ জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্বার করে চিকিৎসার জন্য গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে ৬ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং বাকি সবাইকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহতের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এবং পরিচয় সনাক্ত হলে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।
RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments