30.8 C
Rajbari
সোমবার, জুন ২৭, ২০২২
Homeরাজবাড়ীগোয়ালন্দে বিএনপির সম্মেলন ঘিরে  দুই গ্রুপে উত্তেজনা- একাংশের প্রতিহতের ঘোষনা 

গোয়ালন্দে বিএনপির সম্মেলন ঘিরে  দুই গ্রুপে উত্তেজনা- একাংশের প্রতিহতের ঘোষনা 

শামীম শেখ ,গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) 
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে আগামী ১০ মে তারিখ ঘোষিত  উপজেলা বিএনপি’র সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার (৫ মে) অনুষ্ঠিত উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়ন বিএনপির  সম্মেলনে বিএনপির একাংশের (সাবেক এমপি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম গ্রুপ)  নেতাকর্মীরা অপর গ্রুপের (এ্যাডঃ আসলাম গ্রুপ) সম্মেলন স্থানে গিয়ে তাদেরকে বাধা দেন। এ সময় দুই গ্রুপের নেতা-কর্মীদের তর্ক-বিতর্কে সম্মেলনে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়।
অভিযোগ রয়েছে, গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির নেতৃত্ব দুইটি ধারায় বিভক্ত।এর একাংশের নেতৃত্বে রয়েছে রাজবাড়ী -১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেরা বিএনপির সাবেক সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়াম।
অপর অংশের নেতৃত্ব দেন কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড আসলাম মিয়া।
৬ মে শুক্রবার  উজানচর নবুওছিমদ্দিন পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাঠ  প্রাঙ্গনে  উজানচর  ইউনিয়ন বিএনপির সম্মেলনে মো. সেলিম খান ছলিমকে  সভাপতি, মো. শাহিন মৃধা  সাধারণ সম্পাদক ও মো.ফরিদ উদ্দিনকে সাংগঠনিক সম্পাদক ঘোষনা করে আসলাম পন্থীরা ইউনিয়ন বিএনপির কমিটি ঘোষনা করেন।
কিন্তু কমিটি ঘোষনা পরপরই সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন এ কমিটি হতে ইস্তফার ঘোষনা দেন। এই সম্মেলনটি উজানচর মঙ্গলপুর দাখিল মাদ্রাসা মাঠে আয়োজনের চেষ্টা করেও প্রতিপক্ষের বাঁধার  আশংকায় ভেন্যু পরিবর্তন করা হয় বলে জানা গেছে। এর আগে গত ৪ মে আসলাম পন্থীরা ছোটভাকলা ইউনিয়ন বিএনপির কমিটি গঠন করেন।
গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির (আসলাম পন্থী)  নেতাদের দাবি,তারা সাংগঠনিক নিয়ম মেনে এবং শান্তিপূর্ণভাবে গঠনতন্ত্র মেনে সম্মেলন করছেন। ওয়ান ইলেভেনের সময় সংস্কারপন্থিরা  বিএনপিকে ভাঙ্গার  ষড়যন্ত্র করেছিলো। তারাই পুনরায় বিএনপি ভাঙ্গার ষড়যন্ত্র করছেন।
 জানা গেছে, ২০২১ সালের নভেম্বরে  রাজবাড়ী  জেলা বিএনপির আহ্বায়ক এ্যাড. লিয়াকত আলী বাবু ও সদস্য সচিব এ্যাড. কামরুল আলম  স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গোয়ালন্দ পৌরসভার কাউন্সিলর মো. নিজাম উদ্দিন শেখকে  আহ্বায়ক ও  মো. মোশাররফ হোসেন মুসাকে  সদস্য সচিব করে ৪১ সদস্যবিশিষ্ট গোয়ালন্দ  উপজেলার বিএনপির আহবায়ক  কমিটি গঠন করেন।এরা আসলাম পন্থী হিসেবে পরিচিত।
 তখন এ আহবায়ক কমিটিকে  প্রত্যাখান  করে  গোয়ালন্দ  প্রেসক্লাবে সংবাদ  সম্মেলন করেছিলেন  খৈয়ম গ্রুপের নেতাকর্মীরা। তাদের অভিযোগ ছিল,  ত্যাগী ও সক্রিয় নেতাদের বাদ দিয়ে  অনুগতদের এ কমিটি করা হয়। তারা  এ কমিটি মানেন না।
গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির  সাবেক সভাপতি ও একাংশের আহবায়ক (খৈয়ম পন্থী) সুলতান নুর ইসলাম মুন্নু মোল্লা  বলেন, জেলা কমিটি গোয়ালন্দে বির্তকিত আহবায়ক কমিটি দিয়েছে। ত্যাগি নেতাদের বাদ দিয়ে কমিটি ঘোষনার কারনে আমরা তাদের আহবায়ক কমিটি  প্রত্যাখান করেছি।  আমরা তাদের ১০ তারিখের সম্মেলন প্রতিহত করবো।
গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির অপর অংশের (আসলাম পন্থী)  সদস্য সচিব মোশারফ হোসেন মুসা বলেন,সংগঠনকে শক্তিশালী করার লক্ষে  কেন্দ্রের  নির্দেশে,  গঠনতন্ত্র মেনে ইউনিয়ন কমিটির সম্মেলন করা হচ্ছে। ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রকারীরা পুনরায় বিএনপিকে ভাঙ্গার ষড়যন্ত্র করছেন।
গোয়ালন্দ ঘাট  থানার অফিসার ইনচার্জ  (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার  বলেন, বিএনপির সম্মেলন করা হবে এমন কোনো তথ্য আমাকে জানানো হয়নি। বিএনপির  সম্মেলন ঘিরে আইনশৃঙ্খলার অবনতির সুযোগ দেওয়া হবে না।কেউ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করার চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments