28.8 C
Rajbari
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২
Homeরাজবাড়ীগোয়ালন্দে মরা পদ্মা নদীর ১৫ কিলোমিটার বিশাল জলাশয়কে উম্মুক্ত ঘোষনা

গোয়ালন্দে মরা পদ্মা নদীর ১৫ কিলোমিটার বিশাল জলাশয়কে উম্মুক্ত ঘোষনা

মো. সাজ্জাদ হোসেনঃগোয়ালন্দ প্রতিনিধি 
গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নে অন্তর্গত মরা পদ্মা নদীর প্রায় ১৫ কিলোমিটার আয়তনের  বিশাল জলাশয়কে উম্মুক্ত ঘোষণা করেছেন গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মোস্তফা মুন্সি।
তিনি বলেছেন,আওয়ামী লীগ সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে ততদিন এ জলাশয় এলাকার মানুষের জন্য উম্মুক্ত থাকবে। কেননা এ জলাশয়ের উপর জীবন-জীবিকা নির্ভর করে এলাকার হাজার হাজার জেলে ও সাধারন মানুষের। কোন প্রভাবশালী মহলকে আর এ জলাশয় ভোগদখল করতে দেয়া হবে না।এখন থেকে “জাল যার, জলা তার” নীতি এখানে বাস্তবায়ন হবে।
এর জন্য জলাশয়ের বার্ষিক যে রাজস্ব সেটা আমরা ব্যাক্তিগতভাবে সরকারি কোষাগারে জমা দিয়ে দেব। তবে জনসাধারণের সাথে আমিও দাবি জানাচ্ছি এ জলাশয়টি  সরকারিভাবে উম্মুক্ত ঘোষণা করা হোক।
মরা পদ্মা নদীর “নতুন ব্রিজ এলাকাকে সোলার স্ট্রিট লাইটের মাধ্যমে আলোকায়ন ও পর্যটন এলাকা ঘোষণা” উপলক্ষে আয়োজিত সভায় গনদাবির মুখে তিনি এ ঘোষণা দেন।
৭ জুলাই দুপুরে স্হানীয় মাখন রায়ের পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান।
গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাকির হোসেনের সভাপতিত্ত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাহাবুর রহমান শেখ, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম মন্ডল, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান চৌধুরী, উজানচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা, উজানচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল ইসলাম মন্ডল প্রমুখ।
সভায় জেলা প্রশাসক আবু কায়ছার খান বলেন, জলাশয় উম্মুক্ত করার দাবিটি আমরা সহানুভূতির সাথে বিবেচনা করব। তা ছাড়া এলাকার উন্নয়ন ও সৌন্দর্য পিপাসুদের বিনোদনের চাহিদা মিটাতে আগামীতে এ এলাকায় আরো অনেক কাজ করা হবে।এর জন্য এলাকাবাসীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করতে হবে ।
RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments