29.9 C
Rajbari
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২
Homeকানাডারাজধানী অটোয়ায় শতাধিক গ্রেফতার

রাজধানী অটোয়ায় শতাধিক গ্রেফতার

ডেস্ক রিপোর্টঃ করোনা ভাইরাসের বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে প্রতিবাদরত ট্রাক চালকদের ২২ দিন ধরে চলা নজিরবিহীন অবরোধ মোকাবেলায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিলেন কানাডার রাজধানী অটোয়ার মেয়র। তাতেও কাজ না হওয়ায় ফেডারেল সরকার ১৯৮৮ সালে চালু হওয়া ইমারজেন্সী এ্যাক্ট প্রয়োগ করে আজ শতাধিক বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে সরকারের ভাষায় বেআইনী দখলদারদের সরাতে চেষ্টা করছে।

গাড়ি রেখে ও তাঁবু গেড়ে অবস্থান নিয়ে চলা এই অবরোধের কারণে অটোয়ার কেন্দ্রস্থল অচল হয়ে রয়েছে গত তিন সপ্তাহ যাবত।

বিক্ষোভকারীদের সংখ্যা পুলিশের চেয়ে বেশি হওয়ায় নগরী ‘পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণহীন’ হয়ে পড়েছে বলে মেয়র জিম ওয়াটসন জানিয়েছেন।

কানাডা-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলাচলকারী ট্রাকগুলোর চালকদের জন্য করোনাভাইরাস টিকা বাধ্যতামূলক করেছিল কানাডা। এর প্রতিবাদে ট্রাক চালকরা ‘ফ্রিডম কনভয়’ নামের আন্দোলন শুরু করে। কিন্তু এই আন্দোলন কানাডার জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থা এবং প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকারের বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদ সমাবেশের রূপ নেয় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

পরিস্থিতি সামলাতে সরকারি কোনো পদক্ষেপ না দেখে অটোয়ার বাসিন্দারা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছেন। এই পরিস্থিতিতে নগরীর পুলিশ রবিবার কিছু প্রতিবাদকারীকে অন্য স্থানে সরিয়ে নিয়েছে এবং নতুন ব্যারিকেড স্থাপন করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, তারা ফৌজদারি বিচারে ব্যবহার করা যাবে এমন আর্থিক, ডিজিটাল ও গাড়ির রেজিস্ট্রেশনসহ বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করছে।

প্রতিবাদকারীরা ২২ দিন ধরে অটোয়ার কেন্দ্রস্থল অচল করে রেখেছে। কিছু প্রতিবাদকারী বর্ণবাদী কনফেডারেট পতাকা, নাৎসি পতাকা প্রদর্শন করছে; কানাডা সরকারের পতন ঘটাতে চান বলে জানিয়েছেন কিছু প্রতিবাদকারী।

‘ফ্রিডম কনভয়’ আন্দোলনের সংগঠকরা জানিয়েছেন, টিকার বাধ্যবাধকতা তুলে না নেওয়া পর্যন্ত তারা অবরোধ তুলবেন না।

কানাডার জননিরাপত্তামন্ত্রী মার্কো ম্যানডিচিনো রবিবার জানিয়েছেন, সরকার এই ইস্যুতে পিছু হটবে না।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments